বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:০৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সঙ্গী করুন এই ভেষজগুলো

উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সঙ্গী করুন এই ভেষজগুলো

স্বাস্থ্য  ডেস্ক: বয়স ৪০ পেরুলেই উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভোগেন অনেকে। নারী- পুরুষ কোনো ভেদাভেদ নেই। যে কেউ এই সমস্যায় পড়তে পারেন। তবে এটি আসলে বয়সজনিত সমস্যা। সাধারণ কোনো সমস্যা নয় এটি।

রক্তচাপের সমস্যার কারণে ডায়াবেটিস, দৃষ্টিহীনতার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। এমনকি নীরবে মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে রক্তচাপ। হার্ট অ্যাটাক, হার্ট ফেলিওর হয় রক্তচাপের কারণে। তাই শুরু থেকেই এটি নিয়ন্ত্রণে রাখুন। এর জন্য মুঠো ভর্তি ওষুধ না খেয়ে সঙ্গে রাখুন ভেষজ উপাদান। এতে খুব সহজেই পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ছাড়াই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন।

জেনে নিন কোন ভেষজ উপাদানগুলো আপনাকে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থেকে রেহাই দিতে পারে-

তুলসি
তুলসি রক্তচাপ, ফ্লু, ঠাণ্ডা লাগা, আর্থ্রাইটিসের মতো শারীরিক সমস্যা দূর করতে পারে। তুলসি পাতায় রয়েছে ইউজেনল নামক উপাদান, যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে। তুলসি পাতা চিবিয়ে খেতে পারেন। আবার এর চা বানিয়েও খেতে পারেন।

আমলকি 
শীতকালের একটা সুপার ফুড হল আমলকি। এটি রক্তনালিকে প্রশস্ত করে যার ফলে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা দেখা দেয় না। দিনের যেকোনো সময়ে আমলকি খাওয়া যেতে পারে। তবে ভালো ফল পেতে সকালে ঘুম থেকে উঠে একটা গোটা আমলকি চিবিয়ে খেয়ে নিন। যদি বাজারে না পাওয়া যায় তাহলে আমলকির জুস গরম জলে মিশিয়েও খেতে পারেন।

ত্রিফলা 
ত্রিফলা অত্যন্ত কার্যকর একটা আয়ুর্বেদিক। এটি গ্যাসের সমস্যায় খুব ভালো কাজ করে। এটি আমলা, বহেড়া এবং হরিতকির মিশ্রণ। ত্রিফলার অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন ২ চা চামচ করে ত্রিফলা গুঁড়ো খেলে উচ্চ রক্তচাপ ও কোলেস্টেরলের রোগীদের উপকার হবে।

থানকুনি পাতা 
আর্য়ুবেদ শাস্ত্রে থানকুনি পাতার প্রচুর গুণাগুণ বলা আছে। অনেক ওষুধও তৈরিতে এই পাতার রস ব্যবহার করা হয়। অল্প পরিমাণ থানকুনি পাতা নিয়মিত খেতে পারলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

জোয়ান 
খাবারের পর অনেকেই একটু জোয়ান মুখে দেন। আজোয়ানের গুণাগুণ অনেক। এটি স্ট্রেস হরমোনগুলির উৎপাদন ও কার্যকারিতায় বাধা দেয়, যার ফলে রক্তচাপ বাড়ে না। হজমেও সাহায্য করে জোয়ান।

এজেড এন বিডি ২৪/ রামিম 

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24