শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ :
সাড়ে ৪ ঘণ্টা আগে বিএনপির গণসমাবেশ শুরু ২৪ বছর পর থামলো ব্রাজিলের রেকর্ডযাত্রা ইতিহাস গড়া গোল করে কেন লাল কার্ড দেখলেন আবুবাকার? ‘দ্বিতীয়’ ব্রাজিল জিততে পারল না ব্রাজিলকে হারিয়েও হতাশায় পুড়ল ক্যামেরুন ‘ইপাসি’ দেওয়ালে প্রথমার্ধে দুঃস্বপ্ন ব্রাজিলের ঢাবিতে গাড়ির ধাক্কায় নারীর মৃত্যু নিরাপদ ক্যাম্পাস দাবিতে বিক্ষোভ রোনালদোদের হারিয়ে কোরিয়ার উৎসব চোখের জলে সুয়ারেজ-কাভানিদের বিদায় আইপিএলের নিলামে সাকিব-মোস্তাফিজসহ ৬ বাংলাদেশি রাজশাহীতে পৌঁছালেন মির্জা ফখরুল মিসেস এশিয়া বাংলাদেশের আয়োজকদের বিরুদ্ধে অর্থ নেওয়ার অভিযোগ প্রতিযোগী রাহা’র সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজকদের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আমাকে শারীরিক, মানসিক ও আর্থিক-সব দিকেই টর্চার করেছে: সারিকা প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ
সাগরে বড় সংঘর্ষ থেকে রক্ষা রুশ-মার্কিন রণতরীর! (ভিডিও)

সাগরে বড় সংঘর্ষ থেকে রক্ষা রুশ-মার্কিন রণতরীর! (ভিডিও)

নিউজ ডেস্কঃ ফিলিপাইন সাগরে অল্পের জন্য বড় ধরনের সংঘর্ষের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে রাশিয়া ও আমেরিকার দুই রণতরী। এ ঘটনার জন্য পরস্পরকে দোষারোপ করছে দেশ দু’টি। শুক্রবার ফিলিপাইন সাগরে রুশ রণতরী অ্যাডমিরাল ভিনোগ্রাদোভ ও মার্কিন গাইডেড মিসাইল ক্রুজার ইউএসএস চ্যান্সেলোরসভ্যালি সংঘর্ষের হাত থেকে রক্ষা পায়।

এ বিষয়ে মার্কিন নৌবাহিনীর মুখপাত্র সপ্তম নৌ বহরের মুখপাত্র কমান্ডার ক্লেয়টন ডোস এ তথ্য জানান। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রকে দোষারোপ করে রাশিয়াও একটি বিবৃতি দেয়।

মার্কিন নৌবাহিনীর মুখপাত্র জানান, ফিলিপাইন সাগরে নিজের কার্যক্রম পরিচালনা করছিলো মার্কিন গাইডেড মিসাইল ক্রুজার ইউএসএস চ্যান্সেলোরসভ্যালির। এ সময় রাশিয়ার রণতরী উডালয় আইডিডি৫৭২ মার্কিন রণতরীটির বিরুদ্ধে অরক্ষিত কৌশল ব্যবহার করেছে।

সকালে একটি পৃথক বিবৃতিতে রাশিয়া জানায়, ফিলিপাইন সাগরে রাশিয়ার রণতরী অ্যাডমিরাল ভিনোগ্রাদোভ আইডিডি ৫৭২ তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছিল। এ সময় তারা মার্কিন রণতরীর সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে নিজেদের পথে এগুচ্ছিলেন। কিন্তু এক সময় মার্কিন রণতরী তার গতিপথ পাল্টে রাশিয়ান রণতরীর ৫০ মিটারের মধ্যে চলে আসে। এ সময় বিপজ্জনক সংঘর্ষ এড়াতে জরুরি পদক্ষেপ নেয় রুশ রণতরীটি।

তবে রাশিয়ার বিবৃতির পাল্টা জবাবে যুক্তরাষ্ট্র জানায়, এটা একদমই তাদের অপপ্রচার। ইউএসএস চ্যান্সেলোরসভিলের ৫০ থেকে ১০০ ফুটের মধ্যে এসে গিয়েছিল রুশ ডেস্ট্রয়ার। মার্কিন নৌবাহিনী আরও জানায়, সাগরে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল তার জন্য রাশিয়া দায়ী। এটাকে রাশিয়ার অপেশাদার ও অরক্ষিত তৎপরতা বলে সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *