বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৪৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
বঙ্গবন্ধুর মুজিব কোট এর রহস্য

বঙ্গবন্ধুর মুজিব কোট এর রহস্য

ফিচার ডেস্কঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি যিনি। দেশ স্বাধীন হবার পরে বাংলাদেশে প্রিয় এই নেতার যা যা প্রিয় ছিল,দেশের মানুষের কাছে তাই প্রিয় হয়ে উঠেছিলো। তখনকার বঙ্গবন্ধুর আশেপাশের লোকজন এমন কি তরুনরাও তাকে ফলো করতো অনেক। তার পোষাক আশাক সব কিছুতেই তাকে অনুকরন করা হতো।  সাদা পাঞ্জাবি-পায়জামা আর ৬ বোতামের কালো কোট , বঙ্গবন্ধুর বিশেষ পোশাক ছিলো । ৬ বোতামের কালো কোটটি পরবর্তীতে মুজিব কোট নামে বেশ পরিচয় পায়। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বহন করতো এই মুজিব কোট

বর্তমানে আওয়ামীলীগের বেশির ভাগ রাজনৈতিক নেতা কর্মীরা এই মুজিব কোট পড়ে থাকেন। শুধু তাই নয় বর্তমানে তরুন প্রজন্মের কাছে ও বেশ জনপ্রিয় এই মুজিব কোট। অনেক রাজনৈতিক নেতাদের মতে বঙ্গবন্ধুর এ মুজিব কোটকে ধারন করা মানে বঙ্গবন্ধুকে ধারন করার সামিল।

কিন্তু বঙ্গবন্ধু কেন ৬ বোতাম ওয়ালা এ কোট পরতেন তা জানেন কি ?? আওয়ামীলীগের অনেক নেতাই হয়তো জানেন না কেন পরতেন তিনি এ ৬ বোতাম ওয়ালা কোট।

ঠিক কত সাল থেকে বঙ্গবন্ধু  কালো কোট পরা শুরু করেছিলেন তার কোনো নির্দ্রিষ্ট সময় যানা যায় নি। তবে মাওলানা ভাসানী এবং শামসুল হক যখন আওয়ামী মুসলীম লীগ করলেন তখন  মোস্তাক আহমেদ ও  শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন। ধারণা করা হয়, তখন থেকেই বঙ্গবন্ধুকে এই কোট বেশি ব্যবহার করতেন । তবে এই কোটটির প্রচলন মূলত ভারতের ‘নেহেরু কোট’ থেকে।

স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ভারত উপমহাদেশ স্বাধীনের সময় বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনের প্রতীক হিসাবে এই নেহেরু কোটের প্রচলন শুরু করেন। পরে বঙ্গবন্ধু এই কোটটি পড়তেন বলে এর নাম দেয়া হয় মুজিব কোট।

বিশিষ্ট সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেন জানান আগরতলা মামলার (১৯৬৮) সাল থেকে বঙ্গবন্ধু এই কালোকোট পড়া শুরু করেন।

স্বাধীনতার আগে শেখ মুজিবের গায়ের কোটটি কিন্তু কোন খ্যাতি বা নাম লাভ করে নি। মূলত স্বাধীনতার পরেই হাতকাটা এই বিখ্যাত কোটটি লাভ করে কাল জয়ী নাম। কোটটিতে ছিলো ৬টি বোতাম। শেখ মুজিবরের ৬ দফাই মূলত মুজিব কোটের ৬ বোতাম।

এই মুজিব কোটে ছিলো ৬টি বোতাম। মুজিব কোটের ৬ বোতাম মানেই শেখ মুজিবের ৬ দফা। স্বধীনতা ঘোষণার পূর্বে শেখ মুজিবের গায়ের কোটটি মুজিব কোট হিসেবে তেমন খ্যাতি লাভ করেনি। কালো হাতাকাটা এই বিখ্যাত কোটটি তখনও লাভ করেনি কালজয়ী কোনো নাম।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের এক ছাত্র তার বন্ধু তাজ উদ্দিনকে নিয়ে শেখ মুজিবরের সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন। শেখ মুজিবর কে তিনি অনেক কাছ থেকে দেখেছিলেন। কথাও বলেছিলেন অনেকক্ষন। কথা শেষে বঙ্গবন্ধু যখন কালো কোটটি জড়াচ্ছিলেন তখন ঐ ছাত্র লক্ষ করলেন কোট ছয়টি বোতাম। সাধারনত কোটে এর চেয়ে বেশি বোতাম থাকে। এসময় ছাত্রটি বঙ্গবন্ধুকে জিজ্ঞেস করেন আপনার কোটে বোতাম ছয়টি কেন ? তখন বঙ্গবন্ধু ছাত্রটিকে বুকে জড়িয়ে ধরে বলেন এর আগে এই প্রশ্ন কেউ আমাকে করে নি। তুই প্রথম। এই ৬ বোতাম আমার ছয় দফা দাবীর প্রতীক। ৬টি বোতাম মূলত বঙ্গবন্ধুর ঘোষিত ছয় দফার প্রতিকী বহন করে।

যারা যারা, মুজিব কোর্ট ব্যবহার করেন তাদের অধিকাংশই হয়তো জানেন না মুজিব কোটের ইতিহাস। তবে তারা বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসেন বলেন তার আদর্শ, পোষাক আসাক ফলো করেন।

আজ বঙ্গবন্ধু নেই , কিন্তু তার আদর্শ রয়ে গেছে ইতিহাসের পাতায়।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24