রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
পুনর্গঠনে অনীহা বিএনপি নেতাকর্মীদের

পুনর্গঠনে অনীহা বিএনপি নেতাকর্মীদের

অনলাইন ডেস্কঃ বিএনপিকে গতিশীল করার নানা চেষ্টা এবং পুনর্গঠন প্রক্রিয়া শুরু করলেও তাতে দলটির নেতাকর্মীদের মাঝে অনীহা দেখা দিয়েছে। যদিও বিএনপির হাইকমান্ড সরাসরি নির্বাচনের মাধ্যমে তৃণমূল পর্যায়ের সব কমিটি করার নির্দেশ দিয়েছে। তবুও  নির্দেশনাটি কেউ মানছে না।

বিএনপি পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে নেতাদের ‘এক নেতা এক পদ’ নীতি বাস্তবায়ন করার কথা বলা হলেও সেদিকে নজর নেই কারো। একাধিক পদ আঁকড়ে বসে আছেন যে যার মতো। অনেক নেতাকে এক পদ রেখে অন্য পদ ছেড়ে দিতে খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বেশ কয়েকবার কঠোর নির্দেশ দিলেও সেসবের কিছুই কাজে আসছে না।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২২ সালের জানুয়ারিতে ১৭ সাংগঠনিক জেলার আহ্বায়ক কমিটি করা হয়েছিল। তাদের ৩ মাসের মেয়াদ শেষ। কিন্তু বেশিরভাগ জেলার থানা-উপজেলায় কোনো কমিটিই হয়নি। যেখানে হয়েছে সেখানে নিজের অনুসারী ছাড়া অন্য কাউকে শীর্ষ পদ দেওয়া হয়নি। কৃষক দলসহ চার সহযোগী সংগঠনেরও একই অবস্থা। আহ্বায়ক কমিটি তিন মাসের মধ্যে কাউন্সিলও করতে পারেনি।

জানতে চাইলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার কাজ চলছে। কোথাও কোনো অভিযোগ থাকলে তা দেখতে কেন্দ্রীয় নেতাদের নেতৃত্বে একাধিক টিম কাজ করছে।

যদিও এসব কেবল আশ্বাস বলে মনে করছেন তৃণমূলের নেতারা। কেননা অভিযোগ আছে যে, যেসব জেলার নেতা থানা, পৌর বা উপজেলা কমিটি করেছেন তাতে তাদের নিজস্ব বলয়ের নেতাদের স্থান দিয়েছেন। বিগত দিনে আন্দোলন সংগ্রামে যারা ছিলেন তাদের মূল্যায়ন করেননি। আবার কয়েকটি জেলা আছে যে, নেতাদের মেয়াদ শেষ হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো কার্যক্রমই শুরু করেননি।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির স্থায়ী কমিটির একজন নেতা বলেন, নেতৃত্ব যখন দুর্বল হয় তখন পুরো দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়ে। আর যখন যে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম নেতিয়ে পড়ে তখন বুঝতে হয় সে দলের নেতৃত্বে গলদ রয়েছে। সুতরাং এ নিয়ে কিছু বলার নেই। পদ আঁকড়ে ধরলেই যদি তারা বেঁচে থাকে তবে তারা পদ নিয়েই বাঁচুক- দল গোল্লায় যাক।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24