সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৩০ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
ভারতের নয়টি ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা, যেখানে সকালবেলা গেলেও গা ছমছম করে

ভারতের নয়টি ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা, যেখানে সকালবেলা গেলেও গা ছমছম করে

মজার গল্প ডেস্কঃ ঘুটঘুটে অন্ধকারে ফাঁকা রাস্তা দিয়ে গেলে একটু হলেও গা ছমছম করবে। চোখের ভ্রমে অনেক সময় মনে হতে পারে, কেউ বুঝি পিছু পিছু আসছে!

তবে এখন ভারতের প্রান্তিক অঞ্চলগুলোতেও বিদ্যুৎ পৌঁছে গিয়েছে, কিন্তু এখনো এমন জায়গা বা রাস্তা রয়েছে যেখানে সকালবেলা গেলেও গা শিউরে উঠবে।

ভারতেরই নানা প্রান্তে এমন বেশ কিছু রাস্তা রয়েছে যেগুলিকে ‘ভুতুড়ে’ বলেই মনে করেন স্থানীয়রা। তারা ওই রাস্তাগুলো এড়িয়ে চলতেই পছন্দ করেন। চলুন জেনে নেয়া যাক সেই রাস্তাগুলো সম্পর্কে-

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

কাসারা ঘাট

মুম্বাই-নাসিক হাইওয়ের উপর পড়ে এই জায়গাটি। দাবি করা হয়, কাসারা ঘাট দিয়ে যারাই গিয়েছেন, তাদেরই নাকি ভুতুড়ে অভিজ্ঞতা হয়েছে। কাসারা ঘাটে বহু দুর্ঘটনা হয়েছে। শুধু তাই-ই নয়, খুন করার পর খুনিরা লাশ গুম করার জন্য এই জায়গাকেই বেছে নেয়। তাই এই জায়গা খুন হওয়া ব্যক্তিদের ‘ডাম্পিং গ্রাউন্ড’ হিসেবে পরিচিত। বহু গাড়িচালক আবার দাবি করেছেন, এই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় মুণ্ডহীন নারীকে দেখতে পেয়েছেন, সঙ্গে শুনেছেন অট্টহাস্যও। তবে যারা গাড়ি নিয়ে ভ্রমণ করতে ভালোবাসেন, যারা প্রকৃতিপ্রেমী, তাদের কাছে এই জায়গা লোভনীয়। দু’পাশে সবুজের সমারোহ, তার বুক চিরে চলে গিয়েছে মুম্বাই-নাসিক হাইওয়ে।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

ব্লু ক্রস রোড

চেন্নাইয়ের সবচেয়ে ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা হিসেবে মনে করা হয় ব্লু ক্রস রোডকে। রাস্তার দু’পাশ গাছের চাদরে ঢাকা। তাই দিনের বেলাতেও অন্ধকার থাকে এই রাস্তা। রাতের ছবিটা আরো ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে। ব্লু ক্রস রোডে অনেকেই আত্মহত্যা করেছেন। স্থানীয়দের দাবি, রাতে এই রাস্তায় নাকি অশরীরীরা হেঁটে বেড়ায়। তাই রাতেরবেলা ভুলেও এই রাস্তা ব্যবহার করেন না প্রায় অনেকেই।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

কাসেরি ঘাট

মুম্বাই-গোয়া হাইওয়েতে গোয়া যাওয়ার পথে পড়ে কাসেরি ঘাট। রাতে এই রাস্তা নাকি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। দাবি করা হয়, কাসেরি ঘাটের কাছে আচমকাই বন্ধ হয়ে যায় গাড়ির ইঞ্জিন। শুধু তাই-ই নয়, এই রাস্তা দিয়ে যেতে গিয়ে অনেকেই দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

ইস্ট কোস্ট রোড

চেন্নাই থেকে পুদুচেরি যাওযার সময় এই রাস্তা পড়ে। দুই লেনের এই রাস্তা নাকি এত মসৃণ যে, গাড়িচালকরা গতি বাড়ানোর লোভ সামলাতে পারেন না। এর সঙ্গে বাড়তি পাওনা সবুজের সমারোহ। কিন্তু লোভনীয় এই দৃশ্যের আড়ালে রয়েছে অন্য কাহিনি। সূর্যাস্তের পর নাকি ইস্টকোস্ট রোড এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। ঝুপ করে অন্ধকার নেমে আসে এই রাস্তায়। দাবি করা হয়, এই রাস্তায় নাকি এক নারীকে সাদা শাড়ি পরে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। সে চালকদের বিভ্রান্ত করে। যার ফলে অনেকই দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন। শুধু তাই-ই নয়, এই রাস্তায় হঠাৎ করে তাপমাত্রা নেমে যায়।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

সত্যমঙ্গলম অভয়ারণ্য করিডর

তামিলনাড়ুর এই অভয়ারণ্যের বুক চিরে চলে গিয়েছে ২০৯ নম্বর জাতীয় সড়কের একটি অংশ। এই জঙ্গলেই এক সময় চন্দনদস্যু বীরাপ্পনের গড় ছিল। এই রাস্তার দু’পাশের দৃশ্য মুগ্ধ করার মতো। কিন্তু তামিলানাড়ুতে এই রাস্তাকে ‘ভুতুড়ে’ বলে মনে করা হয়। স্থানীয় মানুষ এবং পর্যটকরা দাবি করেন, রাতে এই রাস্তা দিয়ে গেলেই নাকি বিকট চিৎকার শোনা যায়। নানা রকম ‘ভুতুড়ে’ কাণ্ড ঘটতে থাকে। বিশ্বাস, চন্দনদস্যু বীরাপ্পনের আত্মা নাকি এখানে ঘুরে বেড়ায়।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

দিল্লি-জয়পুর হাইওয়ে

রাজস্তানের জয়পুর থেকে অলওয়ার যেতে গেলে এই হাইওয়ে পড়ে। এই রাস্তা ধরে আবার ভানগড় দুর্গেও যাওয়া যায়। এখানে অদ্ভুত কিছু ঘটনার মুখোমুখি হয়েছেন অনেকেই। যার উত্তর তারা খুঁজে পাননি। আর সেই ঘটনা লোকমুখে ছড়িয়ে পড়তেই রাতে এই রাস্তায় অনেকেই যেতে সাহস পান না।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

দিল্লি ক্যান্টনমেন্ট রোড

রাতে এই রাস্তা এড়িয়ে যাওয়াই শ্রেয় মনে করেন স্থানীয়রা। তাদের দাবি, এই রাস্তায় নাকি এক নারীকে দেখা যায়, যিনি হঠাৎই উধাও হয়ে যান। ওই নারীকে, তার কোনো হদিস আজ পর্যন্ত মেলেনি। কেউ কেউ আবার এমনো দাবি করেছেন, ওই নারী চালকদের গাড়ি থামাতে বলেন। কেউ যদি না থামিয়ে দ্রুত গতিতে বেরিয়ে যান, নারীকেও সেই গতিতে নাকি পাশাপাশি ছুটতে দেখা যায়।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

রাঁচী-জামশেদপুর ৩৩ নং জাতীয় সড়ক

এই রাস্তাতে অস্বাভাবিক ভাবে দুর্ঘটনা ঘটে। যার উত্তর আজো খুঁজে পাওয়া যায়নি। এই রাস্তাতেই দু’টি মন্দির পড়ে। বিশ্বাস, কোনো চালক যদি সেই মন্দিরের সামনে না থামেন এবং প্রার্থনা না করেন, তাহলে সেই গাড়ি ভয়াবহ দুর্ঘটনার মুখে পড়ে। অবিশ্বাস্য মনে হলেও, এমনই হয় বলে দাবি স্থানীয়দের।

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

গা ছমছম করা ‘ভুতুড়ে’ রাস্তা। ছবি: সংগৃহীত

মার্ভ অ্যান্ড মাধ আইল্যান্ড রোড

মুম্বাইয়ের এই রাস্তায় নাকি এক নববিবাহিতার আত্মা ঘুরে বেড়ায়। দাবি, অনেকেই নাকি নতুন বৌয়ের বেশে এক নারীকে দেখতে পেয়েছেন। তার সঙ্গে শুনতে পেয়েছেন বিকট চিৎকারও। কেউ আবার ঝুমুর পরে চলার শব্দও নাকি শুনতে পান। এই রাস্তার একটি কাহিনি আছে। এক ব্যক্তি তার নববিবাহিতা স্ত্রীকে এই রাস্তায় নিয়ে এসে খুন করেন। তার পর থেকেই রাস্তাতে নাকি ওই নারীর আত্মা ঘুরে বেড়ায়।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24