সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৩৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
চট্টগ্রামে অধরাই থেকে গেল পূর্ণাঙ্গ বার্ন ইউনিট

চট্টগ্রামে অধরাই থেকে গেল পূর্ণাঙ্গ বার্ন ইউনিট

অনলাইন ডেস্কঃ চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলায় বঙ্গোপসাগরকে কেন্দ্র গড়ে উঠেছে অন্তত ৬০টি শিপ ইয়ার্ড। এই জাহাজ শিল্পের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ৫০ হাজার মানুষ। পক্ষান্তরে, চট্টগ্রামে আছে প্রায় ৫০০ গার্মেন্টস। এসব তৈরি পোশাক কারখানায় কাজ করেন অন্তত আট লাখ কর্মী। চট্টগ্রামে আছে দেশের বৃহত্তম সমুদ্রবন্দরের মত একটি অতি ব্যস্ততম প্রতিষ্ঠান। এখানে প্রতিনিয়তই ব্যাপক পরিসরে বাণিজ্যিক কাজ পরিচালিত হয়।

কিন্তু এসব প্রতিষ্ঠানে প্রতিনিয়তই ঝুঁকি মাথায় নিয়ে কাজ করেন শ্রমিকরা। শঙ্কা থাকে দুর্ঘটনার। দুর্ঘটনা ঘটেও। এর মধ্যে অধিকাংশই আগুন, গ্যাস বিস্ফোরণসহ এ জাতীয় দুর্ঘটনা। অথচ চট্টগ্রামে এখনও পর্যন্ত একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ বার্ন ইউনিট প্রতিষ্ঠা করা হয়নি। গত শনিবার সীতাকুণ্ডের বিএম কন্টেইনারে বিস্ফোরণে মারা যান ৫০ জন এবং আহত হন অন্তত পাঁচশত মানুষ। এ ঘটনার পর চট্টগ্রামে পূর্ণাঙ্গ বার্ন ইউনিট প্রতিষ্ঠা না হওয়ার বিষয়টি সামনে আসে। তৈরি হয় নানা সমালোচনা, ক্ষোভ। ২০০৬ সালেও চট্টগ্রামের কেটিএস অ্যাপারেলসে অগ্নিকাণ্ডে ৬৫ শ্রমিক মারা গিয়েছিল।

জানা যায়, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে অতীতে সার্জারি বিভাগের এক কোনায় কয়েকটি শয্যায় অগ্নিদগ্ধ রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হত। ২০১২ সালে একটি ২৬ শয্যা দিয়ে বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের যাত্রা শুরু হয়। কিন্তু এখানে নেই কোনো আইসিইউ, শয্যাও অপ্রতুল। ফলে সংকটাপন্ন রোগীদের ঢাকায় নিয়ে যেতে হয়। এ সময় পথেই মারা যান অনেক রোগী।
চমেক হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের প্রধান অধ্যাপক ডা. রফিক উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আজকের সংকটাপন্ন রোগীদের ম্যানেজ করতে অনেক কষ্ট হয়ে যাচ্ছে। শয্যা আছে ২৬টা, রোগী ভর্তি করা হয়েছে ১২০ জন। বাধ্য হয়ে পাশের গাইনি ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়। তাছাড়া এ ইউনিটে সংকটাপন্ন রোগী রাখা যায় না। আইসিইউ দরকার হলে সমস্যায় পড়ে যাই। তবে নতুন একটি বার্ন ইউনিট স্থাপনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

জানা যায়, চট্টগ্রামে সীতাকুণ্ডে বিএম ডিপোতে গত শনিবার রাত ৯টার দিকে ভয়াবহ কনটেইনার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে অর্ধশত মানুষ নিহত এবং প্রায় পাঁচশত আহত হন। ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় রাসায়নিক দ্রব্য বিস্ফোরণের কারণে বারবার বিস্ফোরিত হয় কন্টেইনার। আগুনের তীব্রতার কারণে প্রথম দিকে কাছেও ঘেঁষতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24