রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১০:২০ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
আমি মারা যাচ্ছি বাবা, আমাকে মাফ করে দিও

আমি মারা যাচ্ছি বাবা, আমাকে মাফ করে দিও

অনলাইন ডেস্কঃ তিন মাস আগে বিএম কনটেইনার ডিপোতে চাকরিতে ঢোকেন মমিনুল হক। আগুন লাগার পরপরই অর্থাৎ শনিবার রাত সাড়ে নয়/দশটার দিকে ছেলের সঙ্গে আমার প্রথম কথা হয়। প্রথমবার ছেলে ডিপোতে আগুন লাগার সংবাদ জানায়। তখন তাকে দূরে থাকতে বলেছিলাম। এর ১০ মিনিট পর ছেলে ফোন করে বলে, বাবা বিস্ফোরণে আমার একটা পা উড়ে গেছে। আমি মারা যাচ্ছি বাবা, আমাকে মাফ করে দিও।

শনিবার মধ্যরাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে বসে ছেলের সঙ্গে বলা শেষ কথাগুলো এভাবেই ঢাকা পোস্টকে জানান নিহত মমিনুল হকের বাবা স্কুলশিক্ষক ফরিদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ফোনে ওইটুকু কথা বলার পর লাইন কেটে যায়। রাত ১টার পরে এসে হাসপাতালে ছেলের লাশ পাই।  তার সঙ্গে থাকা মুমিনুলের চাচাত ভাই তৈয়ব বলেন, আমাদের পরিবারের অনেক স্বপ্ন ছিল মুমিনুলকে নিয়ে। কিন্তু সব শেষ হয়ে গেল।

চট্টগ্রামের মহসিন কলেজ থেকে বিবিএ শেষ করে এমবিএ করছিলেন মমিনুল হক। তিন মাস আগে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে যোগ দেন তিনি।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24