সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০২:২৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
রংপুরে ব্যবসায়ী দেলোয়ার হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

রংপুরে ব্যবসায়ী দেলোয়ার হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্কঃ রংপুরের পীরগাছা উপজেলার ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামি ফারুক মিয়াকে অবশেষে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার প্রাথমিক স্বীকারোক্তিতে এ হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়। মঙ্গলবার (৩১ মে) সকালে মিঠাপুকুরের জায়গীরহাট এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া রংপুর জেলার সহকারী পুলিশ সুপার (সি সার্কেল) মো. আশরাফুল আলম পলাশ।

তিনি জানান, পীরগাছা থানা ও জেলা গোয়েন্দা শাখার যৌথ অভিযানে দীর্ঘ ৭২ ঘণ্টা পর চাঞ্চল্যকর দেলোয়ার হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামি ফারুক মিয়াকে মিঠাপুকুরের জায়গীরহাট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়ে পুলিশকে তথ্য দেন। সেই তথ্যের ওপর ভিত্তি করে ঘটনাস্থলের কাছের একটি পুকুর থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দেশীয় ছুরিটি উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় বেশ কিছু ক্লু পাওয়া গেছে জানিয়ে সহকারী পুলিশ সুপার বলেন, মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে পুলিশ ঘটনা তদন্তে কাজ করছে। আসামি ফারুক মিয়াকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তিনি পুলিশের কাছে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন, সেগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (২৭ মে) রাতে পীরগাছা উপজেলার অনন্তরাম কসাইটারী কুড়ারপার ব্রিজ এলাকায় ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন ছুরিকাঘাতে হত্যার শিকার হন। ঘটনার আগমুহূর্তে দেলোয়ার হোসেনকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে বাইরে যান তার ভায়রা ফারুক মিয়া।

নিহত দেলোয়ার হোসেন (৩৬) অনন্তরাম কসাইটারী এলাকার সবুর উদ্দিনের ছেলে। তিনি বিভিন্ন মৌসুমে ধান, গম, ভুট্টা গোডাউনজাত রেখে ব্যবসা করতেন। সম্প্রতি তিনি সবজির ব্যবসা শুরু করেন।

দোকান ভাড়া নিয়ে বিরোধের জের ধরে দেলোয়ার হোসেনকে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে ওই দিনই মামলা করেন নিহত দেলোয়ারের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম। এতে ফারুক মিয়ার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা সাত-আটজনকে আসামি করা হয়। পরদিন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন তিন জনকে আটক করে পুলিশ।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24