বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
বিষের বোতলসহ কাফনের কাপড় নিয়ে ইসি গেটে অবস্থান

বিষের বোতলসহ কাফনের কাপড় নিয়ে ইসি গেটে অবস্থান

অনলাইন ডেস্কঃ সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে নোয়াখালীর হাতিয়ার দুই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদের ৪০ প্রার্থী আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভবনের সামনে অবস্থান নেন।

পরে দুপুর পৌনে ১টার দিকে শেরে-বাংলা-নগর থানার ওসি উৎপল বড়ুয়া অবস্থান কর্মসূচী পালনকারী প্রার্থীদের আলোচনার কথা বলে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেন।

প্রার্থীদের অভিযোগ, স্থানীয় সংসদ সদস্যের অত্যাচারে ভোটের প্রচারণা নামতে পারছেন না। প্রশাসনকে জানিয়েও কোনো প্রতিকার পাননি। তাই সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশের দাবিতে বিষের বোতলসহ কাফনের কাপড় নিয়ে তারা এই কর্মসূচি পালন করছেন।

মঙ্গলবার (৩১ মে) বেলা ১১টা পর ইসি ভবনের সামনে এই অবস্থান কর্মসূচি শুরু হয়।

প্রার্থীরা জানান, আগামী ১৫ জুন হাতিয়ার নব গঠিত ১ নম্বর হরনী ও ২ নম্বর চানন্দি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের ওপর হামলা, প্রচারণা বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনা ঘটছে।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো. মুসফিকুর রহমান বলেন, ভোট প্রয়োগের বিষয়ে সাধারণ জনগণকে প্রাণনাশের মতো হুমকি দেওয়া হচ্ছে। ইউনিয়ন দুটির পাশে মেঘনা নদী, রামগতি ও সুবর্ণচর উপজেলার সীমানা থাকায় সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বেড়ে গেছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান এমপি তার সন্ত্রাসীদের দিয়ে প্রার্থীদের ওপর হামলা চালাচ্ছেন। এমনকি প্রচারণার কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। বর্তমানে প্রার্থীদের নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সব কাজ বন্ধ রয়েছে। নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম পরিলক্ষিত হওয়ায় ভোটাররা আতঙ্কিত। তাই প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা প্রয়োজন।

মুসফিকুর রহমান বলেন, ইউনিয়ন দুটিতে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে প্রতিটি কেন্দ্রে প্রশাসনিক তৎপরতা জোরদার করা আবশ্যক। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে হাতিয়া উপজেলা বহির্ভূত প্রিসাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও পোলিং কর্মকর্তা এবং প্রশাসনিক ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার জনবল নিয়োগ করতে হবে। অন্যথায় নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

অবস্থান কর্মসূচি থেকে সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে ওই এলাকায় ওসি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সার্কেল এসি প্রত্যাহার ও নির্বাচনী প্রচারণা কাজ চালানোর পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছেন তারা।

এদিকে ওসি উৎপল বড়ুয়া বলেন, এখানে এভাবে বসার কোনো সুযোগ নেই। এটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। সরকারি প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তার স্বার্থে কর্মসূচি পালনকারীদের উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে হাতিয়ার (নোয়াখালী-৬) সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদাউসকে ফোন দেওয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি।

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24