সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২২ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
আহ্বায়কেই ১৮ বছর ধরে চলছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগ

আহ্বায়কেই ১৮ বছর ধরে চলছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগ

অনলাইন ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের দীর্ঘ দেড় যুগ অতিবাহিত হলেও এখনো হয়নি পূর্ণাঙ্গ কমিটি। দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত আহ্বায়ক কমিটি দিয়েই পরিচালনা করা হচ্ছে কার্যক্রম। যাদের অধিকাংশই বর্তমানে বিবাহিত। অথচ ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বিবাহিত কেউ ছাত্রলীগের কমিটিতে থাকার সুযোগ নেই।

সর্বশেষ ২০০৪ সালে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের। তখন ওই কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছিলো বর্তমান নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহজালাল বাদলকে, যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছিল মৃত নুরুল ইসলামকে, দ্বিতীয় যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছিল নুরুল ইসলাম পাবেলকে। এছাড়া আহ্বায়ক কমিটির সদস্য করা হয়েছিল আব্দুল মজিদ, শাহাবুদ্দিন রিপন, মিজানুর রহমান, মোতাহার হোসেন মনা, মানিক সরকার প্রমুখ। যার অধিকাংশই বর্তমানে বিবাহিত।

২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটি সিদ্ধিরগঞ্জের ১ নম্বর, ৩ নম্বর, ৬ নম্বর এবং ৮ নম্বর ওয়ার্ড কমিটি গঠন করে। তখন মহানগর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান রিয়াদ থানা কমিটির ব্যাপারে বলেছিলেন, ওয়ার্ড কমিটির নেতৃত্বকারীদের দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা কমিটি গঠন করা হবে।

সর্বশেষ ২০১৯ সালের ২৮ জুলাই ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির তৎকালীন সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটির ঘোষণা দিয়েছিলেন। এতে হাবিবুর রহমান রিয়াদকে সভাপতি এবং হাসনাত রহমান বিন্দুকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। তবে তারা দায়িত্বে থাকাকালেও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হয়নি।

এদিকে গত ৮ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে মহানগর ছাত্রলীগের কমিটিও বিলুপ্ত করা হয়। তাদেরও নতুন কমিটি গঠিত হয়নি। ফলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের বিষয়টি আরও অধরাই রয়ে গেলো।

দীর্ঘ ১৮ বছর পরও ছাত্রলীগের কমিটিতে নতুনদের আগমন না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তরুণ প্রজন্মের কর্মীরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক শাহজালাল বাদল বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে কমিটিতে আছি। আমাদের এখন বয়স হয়েছে। তাই আমরাও চাই নতুন নেতৃত্ব আসুক। আমাদের কেন্দ্র থেকে কোনো নির্দেশ দেওয়া হয়নি। ফলে এখনো কোনো কমিটি হয়নি।’

মোতাহার হোসেন মনা নামে ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির আরেক সদস্য বলেন, ‘কোনো এক অজ্ঞাত কারণে থানা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠন হচ্ছে না। আমরাও চাই নতুন কমিটি হোক। এতে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম আরও বাড়বে।’

এ বিষয়ে জানতে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদের মোবাইল নম্বরে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান  বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা করছি থানা ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের। এজন্য আমাদের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সাহেব, জেলা পরিষদের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রিয়াদকে কমিটি গঠন করতে বলেছি। কেন্দ্র থেকে নির্দেশ না দিলে আমার এখানে আর কিছু করার নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রলীগ কমিটি গঠন না করা পর্যন্ত থানা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা সম্ভব না। এ কমিটি গঠন করতে হলে সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে বসতে হবে। আগামী জুনে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাউন্সিল হতে পারে। আশা করছি, এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠন করা হবে।’

এজেড এন বিডি ২৪/ রেজা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24