সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০১:১১ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
তবুও ‘বদলি’ খেলোয়াড় তাইজুল!

তবুও ‘বদলি’ খেলোয়াড় তাইজুল!

অনলাইন ডেস্কঃ  দিনের পর দিন স্কোয়াডে থাকবেন, তবে মুল দলে থাকবেন না, এটাই যেন তাইজুল ইসলামের নিয়তি। নিজের জাত চেনালেও তাইজুল বাংলার ক্রিকেটে আছেন অনেকটা পার্শ্ব চরিত্র হয়ে। তার কাজ যেন শূন্যস্থান পূরণ করে চলা।

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টেও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। তাসকিন আহমেদ ইনজুরির কারণে দলের বাইরে, একই কারণে নেই পেস ব্যাটারির আরেক ভরসা শরীফুল ইসলামও। তাই সলিড বোলার হিসেবে একরকম তাইজুলকে বাধ্য হয়েই দলে নিয়েছেন মুমিনুল হক। তবে সেই ‘বদলি’ বা ‘বিকল্প’ হিসেবে মূল একাদশে জায়গা পাওয়া তাইজুলই বাংলাদেশের মূল ভরসা হয়েছেন সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে।

সারিল ইরউইকে ফিরিয়ে প্রোটিয়া শিবিরে প্রথম ভাঙন ধরান পেসার খালেদ হোসেন। তবে তারপর সাফল্য পেতে রীতিমতো মুমিনুল বাহিনীর ঘাম ঝরেছে। ভয়ংকর হয়ে ওঠা ডিন এলগারকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে খেলায় ফেরান তাইজুল। কিগান পিটারসনকেও ৬৪ রানে ফিরিয়েছেন সব সময় পাদপ্রদীপের আলোর আড়ালে থাকা এই বোলার। নিজের তৃতীয় শিকার হিসেবে রায়ান রিকেলটনকেও ফিরেয়েছেন তাইজুল।

ডারবান টেস্টের শেষ দিন স্পিন ভেল্কি দেখিয়েছে, মহারাজ-হারমারে চুরমার হয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু উইকেটের বাক পড়তে না পারা মুমিনুল হকের দল ওই টেস্টে তাইজুলে বাজি ধরতে পারেনি। পোর্ট এলিজাবেথেও হয়তো তাইজুলকে সাইড বেঞ্চিতে বসে থাকতেই হতো, যদি না তাসকিন-শরিফুল প্রেক্ষাপট থেকে সরে যেতেন।

তবে আগাগোড়া ক্রিকেটার তাইজুল ইসলাম এ নিয়ে কখনো প্রকাশ্যে ক্ষোভ ঝারেননি। সাদা পোশাকেই মাটি কামড়ে পড়ে আছেন সাধকের মতো, সুযোগ পেলে নিজেকে প্রমাণ করেন; না পেলেও চলে তার আরাধনা। এ যেন ক্রিকেটীয় নির্বাণ, যে ক্রিকেট সাধু অভিশাপ দিতে জানে না; জানেন কেবল নিজের কাজটা নিজের মতো করে যেতে।

এজেড এন বিডি ২৪/ রামিম

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24