সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
রুশ আগ্রাসন: কালাশনিকভ হাতে ইউক্রেনের নারী এমপির ছবি ভাইরাল

রুশ আগ্রাসন: কালাশনিকভ হাতে ইউক্রেনের নারী এমপির ছবি ভাইরাল

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার মুখে ইউক্রেনকে বাঁচাতে দেশটির বহু সাধারণ মানুষই হাতে অস্ত্র তুলে নিয়েছেন। হামলা শুরুর একদিন পর শুক্রবার থেকে রাজধানী কিয়েভের রাস্তায়ও অনেককে হাতে অস্ত্র নিয়ে নামতে দেখা গেছে। আর এবার রুশ আগ্রাসনের মুখে অস্ত্র হাতে নিয়েছেন দেশটির একজন নারী এমপিও।

অস্ত্র হাতে তুলে নেওয়া ওই নারী এমপির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেটিও আবার সাধারণ কোনো অস্ত্র নয়, সর্বাধুনিক অস্ত্র কালাশনিকভ রাইফেল হাতে তুলে নিয়েছেন তিনি। রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস এবং ইন্ডিয়া টুডে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার মুখে হাতে অস্ত্র তুলে নেওয়া ইউক্রেনের ওই নারী এমপির নাম কিরা রুদিক। তিনি ইউক্রেনের ভয়েস পার্টির নেত্রী এবং একজন আইনপ্রণেতা। রুশ আগ্রাসন শুরুর পর হাতে আধুনিক অস্ত্র নিয়ে তোলা সেই ছবি টুইটারে শেয়ারও করেছেন কিরা।

সেখানে তিনি জানিয়েছেন, এই প্রথমবার অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছেন তিনি। আর এই অস্ত্র তার মধ্যে এক অন্য অনুভূতি তৈরি করেছে। কিরার দাবি, নিজের দেশকে রক্ষার ব্যাপারে তিনি আত্মবিশ্বাসী।

টুইটে ছবি পোস্ট করে কিরা রুদিক আরও জানিয়েছেন, সম্প্রতি কালাশনিকভ রাইফেল ব্যবহার করতে শিখেছেন তিনি। কয়েক দিন আগেও যা তিনি কল্পনাতেও আনতে পারতেন না। তিনি লিখেছেন, পুরুষদের সঙ্গে নারীরাও একই ভাবে দেশের মাটিকে রক্ষা করবে।

এদিকে সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইউক্রেনের নারী এই আইনপ্রণেতা জানিয়েছেন, তিনি রাশিয়ার ওপর ক্ষুব্ধ। কারণ রুশ হামলার কারণে তিনি নিজের শহর ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। তিনি কিয়েভেই থাকতে চান।

কিরা রুদিক আরও জানিয়েছেন, বোমা হামলার সাইরেন বাজলেই কচ্ছপ খেলা খেলতে সন্তানদের শিখিয়ে দিয়েছেন তিনি। এর অর্থ- সতর্কতা সাইরেন বাজলেই মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে মুখটা খুলে ও কানে হাত দিয়ে থাকতে হবে।

কিরার অনুমান, স্বাভাবিক জীবনে আর কোনোদিন ফিরতে পারবেন না তিনি। তবে প্রেসিডেন্ট পুতিন শিগগিরই ইউক্রেন থেকে রুশ বাহিনীকে ফিরিয়ে নেবে বলেও আশা তার। তিনি জানিয়েছেন, যারা ইউক্রেন ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন, তারাও এখন ফিরে আসছেন অস্ত্র হাতে।

নারী এই এমপির দাবি, তিনি কখনোই যুদ্ধ চাননি, সবসময় শান্তিতে বসবাস করতে চেয়েছিলেন। তবে যুদ্ধের এই সময়ে দেশের সকল নারীই লড়াই করার জন্য প্রস্তুত।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে ইউক্রেনের পার্লামেন্টের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন ৩৬ বছর বয়সী কিরা রুদিক।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24