বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০২:২৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
দিন শেষে স্বস্তিতে বাংলাদেশ

দিন শেষে স্বস্তিতে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্কঃ তৃতীয় সেশনে বোলারদের দাপটে স্বস্তিতে দিন পার করল টাইগাররা। সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিন শেষে নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ২৫৮ রান।

বে ওভালের মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে শনিবার সিরিজের প্রথম টেস্টে টস জিতে বোলিং বেছে নেয় সফরকারীরা। তাসকিন, শরিফুল ও ইবাদতকে নিয়ে সাজানো টাইগারদের পেস আক্রমণের শুরুটাও ভালোই ছিল। তাসকিন ও শরিফুল দু’জনেই সুইং আদায় করে নেন। তবে প্রথম সাফল্য পান চোট কাটিয়ে টেস্ট দলে ফেরা শরিফুল।

কিউই ওপেনার ও ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক টম ল্যাথামকে দিনের চতুর্থ ওভারেই বিদায় করেন শরিফুল। তার ভেতরে ঢোকা বল ল্যাথামের (১) ব্যাটের ভেতরের কানা ছুঁয়ে প্যাডে লেগে যায় পেছনে। আর ঝাঁপিয়ে তা এক হাতে তালুবন্দি উইকেটরক্ষক লিটন দাসে।

ল্যাথাম বিদায় নেওয়ার পর উইকেটে থিতু হয়ে রানের ফোয়ারা ছোটান ইয়ং ও কনওয়ে। ১০২ বলে জুটিতে ফিফটি রান আসে। প্রথম সেশনটা আর কোনো উইকেট হারাতে দেননি তারা।

দ্বিতীয় সেশনে কিছুটা মারমুখী হন কনওয়ে ও ইয়াং। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে ১০১ বলে ফিফটি তুলে নেন কনওয়ে। দু’জনের জুটিতে আসে ১৩৮ রান। এরপর মিরাজের বলে সিঙ্গেল নিতে গিয়ে নাজমুল হোসেন শান্তর থ্রোয়ে রানআউটের শিকার হন ইয়াং (৫২)।

এরপর বিদায়ী টেস্ট খেলতে নামা রস টেইলরকে নিয়ে ফের ঘুরে দাঁড়ান কনওয়ে। দুজনের জুটি জমে উঠার পথে সেঞ্চুরি হাঁকান তিনে নামা কনওয়ে, দারুণ সঙ্গ দেন টেইলরও। দুজনের জুটিতে আসে ৫০ রান। সেঞ্চুরি হাঁকানো পথে ১৪টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকান কনওয়ে। তবে পরের ওভারেই শরিফুলের বলে কভারে থাকা সাদমান ইসলামের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে বিদায় নেন ৩১ রান করা টেইলর।

টেইলর বিদায় নিলেও হেনরি নিকোলসকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন কনওয়ে। দু’জনের জুটিতে ৩৮ রানও আসে। পরিস্থিতি বুঝে বল হাতে তুলে নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল। নিজের তৃতীয় ওভারেই সাফল্য পেয়ে যান এই পার্ট-টাইম স্পিনার। মুমিনুলের লেগ স্ট্যাম্পের বাইরের বলে ব্যাট ছোঁয়াতে গিয়ে উইকেটরক্ষক লিটনের হাতে ক্যাচ তুলে দিলে শেষ হয় কনওয়ের ২২৭ বলে ১৬ চার ও ১ ছক্কায় সাজানো ১২২ রানের ইনিংস।

কনওয়ের বিদায়ের পর হাল ধরেছিলেন হেনরি নিকোলস, তাকে সঙ্গ দিচ্ছিলেন টম ব্লান্ডেল। কিন্তু এই জুটিকে বেশিদূর যেতে দেননি ইবাদত। দিনের বাকি সময় বাজে বোলিং করলেও শেষ বেলায় এসে ব্লান্ডেলকে (১১) বিদায় করেন এই ডানহাতি পেসার। দিন শেষে ৩২ রানে অপরাজিত থাকেন নিকোলস।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24