শনিবার, ২১ মে ২০২২, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
২০ বছর পর আবারও বেন অ্যাফ্লেক-জেনিফার লোপেজের বাগদান রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় শেষ নেই চাঁদাবাজির তবুও ‘বদলি’ খেলোয়াড় তাইজুল! সাকিব আল হাসানের শাশুড়ি আর নেই অভিযুক্তকে আজীবন নিষিদ্ধের দাবি, চাহালকাণ্ডে ক্ষোভে ফুঁসছেন শাস্ত্রী টেকনাফে পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ১ ‘ভারতকে বেশি ভালোবাসলে, সেখানে চলে যান’, ইমরানকে মরিয়াম ভাগ্য নির্ধারণী অধিবেশনে অনুপস্থিত ইমরান খান বহ্নি চরিত্রে মিথিলার লুক খুলনায় ট্যাংকলরি শ্রমিকদের কর্মবিরতি সাময়িক স্থগিত ‘প্রেমের প্রস্তাবে’ রাজি না হওয়ায় ওসির মেয়েকে মারধর, মামলা দায়ের ডা. বুলবুল হত্যাকাণ্ড; চার পেশাদার ছিনতাইকারী গ্রেফতার মেয়েদের নিয়ে স্কুল থেকে ফেরা হলো না সাবিনার ‘রাজকুমার’ শাকিবের নায়িকা হচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের কোর্টনি নিয়ম তো সবার জন্য এক মামা, ঋতুপর্ণাকে খোঁচা শ্রীলেখার?
৯টি কথায় বশে আসবেন সব শাশুড়ি! জেনে রাখুন বউমারা

৯টি কথায় বশে আসবেন সব শাশুড়ি! জেনে রাখুন বউমারা

নিউজ ডেস্ক: শাশুড়ি-বউমার সম্পর্কের সমীকরণ আজও কেউ সমাধান করতে পারেননি। শাশুড়ি-বউমার মধ্যে বনিবনা না হওয়ার ঘটনা কিছু নতুন নয়। কিন্তু চাইলেই তাঁর ‘মেয়ে’ হয়ে ওঠা যায়। তার জন্য প্রায়ই শাশুড়িকে এই ৯টি কথা বলুন।

১. শাশুড়িকে বলুন যে আপনি তাঁর ছেলেকে কতটা ভালবাসেন। কিন্তু শাশুড়ির থেকেও আপনি বেশি ভালবাসেন— এমন কখনই বোঝাবেন না।

২. শাশুড়িকে কথায় কথায় বোঝান, আপনি তাঁর জায়গা দখল করতে আসেননি। ছেলের জীবনে আগেও তিনি যেমন ছিলেন, সব সময়েই তাই থাকবেন।

৩. শাশুড়িকে প্রায়ই বলুন, আপনি তাঁকে কতটা সম্মান করেন। আপনার স্বামীকে যেভাবে তিনি মানুষ করেছেন, তার কদর করুন।

৪. শাশুড়িকে কখনওই দেখাবেন না যে, আপনি তাঁর থেকেও বেশি জানেন সব বিষয়ে। বরং তাঁকে আপনার কতটা প্রয়োজন সেটা কথায় বুঝিয়ে দিন।

৫. মতের অমিল হতেই পারে। কিন্তু তা বলে শাশুড়ির প্রতি আপনার সম্মান যে কমবে না, তা বুঝিয়ে দিন।

৬. বুঝিয়ে দিন, আপনারও ভুল হতে পারে। তাঁর ছেলের ভুলগুলিও যেমন তিনি মেনে নেন, আপনার ভুলগুলিও যাতে ছোট ভেবে মেনে নেন।

৭. আপনি মানুষ হিসেবে কতটা ভরসার যোগ্য, তা কথায় ও কাজে বোঝাতে থাকুন।

৮. শাশুড়ি যেভাবে তাঁর সন্তানদের মানুষ করেছেন, আপনি সেভাবে সন্তানদের মানুষ না-ই করতে পারেন। কিন্তু তা-ও তাঁর থেকে পরামর্শ নিতে থাকুন।

৯. শাশুড়িকে বলুন নিজের সন্তান না হলেও, আপনি তাঁকে মায়ের মতোই সম্মান করেন। এই পরিবারকে আপনি কতটা নিজের করে নিয়েছেন, তা বলুন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x