বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
ডেঙ্গু রোগী ভর্তি ২২ হাজার ছাড়াল, এ পর্যন্ত মৃত্যু ৮৪ ১১ মামলায় খালেদা জিয়ার হাজিরা ২২ নভেম্বর রান না দিয়ে তাসকিনের উইকেট শিকার, প্রথম বলেই সাকিবের সাফল্য শেষ ওভারে সাইফউদ্দিনের তাণ্ডব দ্বিতীয় ওভারেই সাইফউদ্দিনের সাফল্য অষ্টম শ্রেণিতে পড়েই এসপির চেয়ারে নুসরাত মণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখা কে এই ইকবাল? প্রকাশ পেল যুবলীগের চিঠি সংকলন গ্রন্থ ‘প্রিয় বঙ্গবন্ধু’ ঝিনাইদহে ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার পাপুয়া নিউগিনিকে ১৮২ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ অর্থপাচার মামলা: কুয়েতে দণ্ডপ্রাপ্ত পাপুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২২ ডিসেম্বর ফিফটির পর সাজঘরে মাহমুদউল্লাহ অর্ধশতক হাঁকিয়ে ফিরলেন মাহমুদুল্লাহ পাপুয়া নিউগিনিকে ১৮২ রানের টার্গেট দিল টাইগাররা ৩৯ বছর আগে পাপুয়া নিউগিনির কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ
২০০ কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেফতার

২০০ কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেফতার

বিনোদন ডেস্কঃ প্রেমিক বন্দী জেলে। কিন্তু তার অপরাধের সাম্রাজ্য পরিচালনা করছেন প্রেমিকা অভিনেত্রী। ২০০ কোটি টাকার চাঁদাবাজি করেছেন তিনি। সেই অভিযোগের প্রমাণ থাকায় গ্রেফতার হয়েছেন লীনা মারিয়া পল।

রোববার দিল্লি পুলিশের ইকোনমিক অফেন্সেস উইং তাকে গ্রেফতার করে। জেলবন্দি প্রেমিকের হয়েই এই চাঁদাবাজির কাজ করছিলেন লীনা অভিযোগের সত্যতা মিলেছে।

লীনা বলিউডের পরিচিত মুখ। ২০১৩ সালে ‘মাদ্রাজ কাফে’-তে দেখা গিয়েছিল তাকে। এরপর অবশ্য খুব বেশি নিয়মিত কাজ করতে দেখা যায়নি তাকে।

লীনার প্রেমিক এস চন্দ্রশেখর। গেল কয়েক মাস ধরে কারাগারে রয়েছেন। তাকে দিল্লির রোহিণী জেলে রাখা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, প্রতারণা-সহ একাধিক অভিযোগ আছে। সব মিলিয়ে মোট ২১টি অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। বন্দি অবস্থাতেও তিনি এই সমস্ত কুকর্ম চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলে পুলিশ জানতে পারে।

পুলিশ সূত্রে খবর, এই কাজে তাকে জেলের দু’জন অফিসারও সাহায্য করছিলেন। পাশাপাশি প্রেমিকা, অভিনেত্রী লীনা এবং আরও দুই সহযোগী ছিলেন চন্দ্রশেখরের। লীনার সঙ্গে ওই দুই সহযোগী এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট জেল সুপারিটেন্ডেন্ট এবং ডেপুটি সুপারিটেন্ডেন্টও গ্রেফতার হয়েছেন।

অপরাধের কথা স্বীকারও করেছেন রোহিণী জেলের দায়িত্বে থাকা এই দু’জন।

গত ৭ অগস্ট ফর্টিস হেলথকেয়ারে প্রাক্তন প্রোমোটার শিবিন্দর সিংহের স্ত্রী পুলিশে অভিযোগে জানান, গত জুন মাসে আইন মন্ত্রকের সিনিয়ার অফিসার সেজে তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন এক ব্যক্তি। বড় অঙ্কের টাকার বিনিময়ে তার স্বামী শিবিন্দর সিংহের জামিন পাইয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন। তার স্বামী আসলে আর্থিক তছরুপের অভিযোগে জেলবন্দি ছিলেন তখন। কিন্তু আশ্বাস মতো কাজ না হলে তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন।

পরে তদন্তে চন্দ্রশেখরের নাম উঠে এসেছিল। পুলিশ জানতে পেরেছিল, জেলবন্দি অবস্থায় চন্দ্রশেখরই আইন মন্ত্রণালয়ের অফিসার সেজে তার সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং চন্দ্রশেখরের কথাতেই অভিযোগকারিণী অদিতির থেকে ২০০ কোটি টাকা নিয়েছিলেন লীনা।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x