বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি বাড়িঘরে হামলা, জ্বালাও-পোড়াও করছে : রেলমন্ত্রী ডেঙ্গু রোগী ভর্তি ২২ হাজার ছাড়াল, এ পর্যন্ত মৃত্যু ৮৪ ১১ মামলায় খালেদা জিয়ার হাজিরা ২২ নভেম্বর রান না দিয়ে তাসকিনের উইকেট শিকার, প্রথম বলেই সাকিবের সাফল্য শেষ ওভারে সাইফউদ্দিনের তাণ্ডব দ্বিতীয় ওভারেই সাইফউদ্দিনের সাফল্য অষ্টম শ্রেণিতে পড়েই এসপির চেয়ারে নুসরাত মণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখা কে এই ইকবাল? প্রকাশ পেল যুবলীগের চিঠি সংকলন গ্রন্থ ‘প্রিয় বঙ্গবন্ধু’ ঝিনাইদহে ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার পাপুয়া নিউগিনিকে ১৮২ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ অর্থপাচার মামলা: কুয়েতে দণ্ডপ্রাপ্ত পাপুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২২ ডিসেম্বর ফিফটির পর সাজঘরে মাহমুদউল্লাহ অর্ধশতক হাঁকিয়ে ফিরলেন মাহমুদুল্লাহ পাপুয়া নিউগিনিকে ১৮২ রানের টার্গেট দিল টাইগাররা
সিনহা হত্যা: পঞ্চম ধাপের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

সিনহা হত্যা: পঞ্চম ধাপের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

অনলাইন ডেস্কঃ কক্সবাজারের টেকনাফে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় পঞ্চম ধাপের প্রথমদিনের সাক্ষ্যগ্রহণের বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ওসি প্রদীপসহ এ মামলার ১৫ আসামিকে হাজির করা হয়। এরপর সোয়া ১০টার দিকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ইসমাঈলের আদালতে ২১তম সাক্ষীর জবানবন্দি গ্রহণের মধ্য দিয়ে বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়।

আদালতের পিপি ফরিদুল আলম বলেন, ২০তম সাক্ষী বেবি বেগমের মধ্য দিয়ে বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আগের একজনের জেরা বাকি রয়েছে, সেটাও আজ শেষ করা হবে। আজকে ১০ জন সাক্ষীকে উপস্থাপন করা হবে।

এর আগে, বুধবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ইসমাঈলের আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত।

২৮ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর এ দুদিনে সাক্ষী ছেনুয়ারা বেগম, আলী আহমদ, হাম জালাল, ফরিদুল মোস্তফা, সালেহ আহমদ ও বেবি বেগম। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত চতুর্থ দফায় এ মামলায় ২০ জন সাক্ষী তাদের জবানবন্দি দিয়েছেন।

এর আগে, ২০, ২১ ও ২২ সেপ্টেম্বর তিনদিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ২৮ ও ২৯ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করা হয়।

তৃতীয় ধাপের প্রথম দিন সাক্ষ্য দেন আবদুল হামিদ, মোহাম্মদ ফিরোজ ও শওকত আলী নামে তিনজন। দ্বিতীয় দিন সাক্ষ্য দেন মারিশবনিয়া মসজিদের ইমাম হাফেজ জহিরুল ইসলাম ও ডা. রণবীর দেবনাথ। তাদের ১৫ জন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জেরা করেন।

এর আগে, দ্বিতীয় ধাপের চারদিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয় ৮ সেপ্টেম্বর। দ্বিতীয় ধাপের চতুর্থ দিনে সাক্ষ্য দেন ৬ নম্বর সাক্ষী শামলাপুর বায়তুর নুর জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা শহিদুল ইসলাম।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান। তার সঙ্গে থাকা সাহেদুল ইসলাম সিফাতকে পুলিশ আটক করে। এরপর সিনহা যেখানে ছিলেন সেই নীলিমা রিসোর্টে ঢুকে তার ভিডিও দলের দুই সদস্য শিপ্রা দেবনাথ ও তাহসিন রিফাত নূরকে আটক করা হয়। পরে তাহসিনকে ছেড়ে দিলেও শিপ্রা ও সিফাতকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। এরপর দুজনই জামিনে মুক্তি পান।

সিনহা হত্যার ঘটনায় মোট চারটি মামলা হয়েছে। ঘটনার পরপরই তিনটি মামলা করে পুলিশ। এর মধ্যে দুটি মামলা হয় টেকনাফ থানায়, একটি রামু থানায়। ঘটনার পাঁচদিন পর কক্সবাজার আদালতে টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। চারটি মামলা তদন্তের দায়িত্ব পায় র‍্যাব।

২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকর্তা র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খাইরুল ইসলাম।

আসামিদের মধ্যে পুলিশের ৯ জন সদস্য রয়েছেন। তারা হলেন- বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, পরিদর্শক লিয়াকত আলী, কনস্টেবল রুবেল শর্মা, এসআই নন্দদুলাল রক্ষিত, কনস্টেবল সাফানুল করিম, কামাল হোসেন, আবদুল্লাহ আল মামুন, এএসআই লিটন মিয়া ও কনস্টেবল সাগর দেবনাথ।

অন্য আসামিরা হলেন, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্য এসআই মো. শাহজাহান, কনস্টেবল মো. রাজিব ও মো. আবদুল্লাহ এবং টেকনাফের বাহারছড়ার মারিষবুনিয়া গ্রামের বাসিন্দা ও পুলিশের করা মামলার সাক্ষী নুরুল আমিন, মো. নিজাম উদ্দিন ও আয়াজ উদ্দিন।

আসামিদের মধ্যে ১২ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তবে ওসি প্রদীপ ও কনস্টেবল রুবেল শর্মা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেননি। এর আগে আসামিদের তিন দফায় ১২ থেকে ১৫ দিন রিমান্ডে নেয়া হয়েছিল।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x