সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:১২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্বের বাধ্যবাধকতা তুলে নিল সৌদি নুসরাতের মামলা: অসংলগ্ন অনুমান আর কল্পনা মানুষের জীবনের থেকেও কি ধর্ম বড়, প্রশ্ন শ্রীলেখার স্ত্রীকে রেখে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করলেন শিক্ষক হাতির পিঠে চড়ে মনোনয়ন জমা সনাতন ধর্মাবলম্বীর সৎকারে এগিয়ে এলো মুসলিমরা আবারও বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম বগুড়ার অপু বিশ্বাস যেভাবে সিনেমার নায়িকা হলেন শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন আজ স্কটল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বকাপ শুরু বাংলাদেশের বাংলাদেশের সামনে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল স্কটল্যান্ড মালিঙ্গাকে পেছনে ফেলে বিশ্ব রেকর্ড সাকিবের কাপাসিয়ায় ১১ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ৫০ জন লক্ষ্মীপুরে ৪ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ২৮ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল বাংলাদেশের দাপুটে বোলিংয়ে কোণঠাসা স্কটল্যান্ড
সাত হাজারে শিক্ষাবোর্ডে চাকরি!

সাত হাজারে শিক্ষাবোর্ডে চাকরি!

অনলাইন ডেস্কঃ মেহেদী হাসান বাবু ও রবি দাশ। সম্পর্কে দুজন বন্ধু। একজনের বাড়ি কুমিল্লার লাকসাম ও অন্যজনের চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলায়। এইচএসসিতে আশানুরূপ ফল করতে না পেরে চাকরির সিদ্ধান্ত নেন তারা। পরিচিত অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ করেও মিলছিল না কোনো চাকরি। কিন্তু হঠাৎ মেঘ না চাইতেই জলের মতো চাকরি নিয়ে হাজির হন অপরিচিত এক ব্যক্তি।

অল্প টাকা খরচেই মিলবে সরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি- এমন আশ্বাস পেয়ে দুই দফায় ১৪ হাজার টাকা তুলে দেন তার হাতে। কিন্তু চাকরিতে যোগ দিতে গেলেই জানতে পারেন পুরোটাই বোগাস।

জানা গেছে, ২৩ জুলাই চট্টগ্রাম নগরের টাইগারপাস আমবাগান এলাকায় নিজেদের মধ্যে চাকরির বিষয়ে আলাপ করছিলেন মেহেদী ও রবি। ওই সময় তাদের সামনে এসে দাঁড়ান আব্দুর রাজ্জাক নামে এক ব্যক্তি। তিনি তাদের চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে চাকরি দেওয়ার আশ্বাস দেন। আর সেই ফাঁদে পা দিয়ে প্রথম দফায় দুই হাজার করে চার হাজার ও দ্বিতীয় দফায় পাঁচ হাজার করে ১০ হাজার টাকা তার হাতে তুলে দেন দুই বন্ধু। টাকা পেয়ে তাদের যোগদানপত্র সরবরাহ করেন আব্দুর রাজ্জাক।

বুধবার সকাল ৮টায় সেই কথিত যোগদানপত্র নিয়ে চাকরিতে যোগ দিতে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে যান মেহেদী ও রবি। এরপর শিক্ষাবোর্ডে দায়িত্বরত আনসার কমান্ডারের মাধ্যমে বিষয়টি বোর্ডের উপসচিব বেলাল হোসেনের নজরে আনা হলে জানা যায় প্রতারণার শিকার হয়েছেন তারা।

উপসচিব বেলাল হোসেন বলেন, সকাল ১০টার দিকে শিক্ষাবোর্ডে চাকরিতে যোগদান করতে আসেন দুই যুবক। আনসার কমান্ডার আমাকে ফোনে বিষয়টি জানালে আমি তাদের আমার কার্যালয়ে ডেকে আনি। এরপর তাদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে দেখি তারা প্রতারণার শিকার। পরে বিষয়টি বোর্ডের চেয়ারম্যানকে জানানো হয়। একই সঙ্গে জানানো হয় পাঁচলাইশ থানা পুলিশকে। পরে পুলিশ এসে দুই বন্ধুকে নিয়ে যায় এবং বিষয়টি তদন্ত করে দেখবে বলে জানায়।

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রদীপ চক্রবর্তী বলেন, অফিস সহকারী পদে চাকরিতে যোগদান করতে এসেছিলেন দুজন। আমার নকল স্বাক্ষর দিয়ে যোগদানপত্র দেওয়া হয়েছে তাদের। শিক্ষাবোর্ড থেকে এ ধরনের কোনো নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়নি। এছাড়া আমার যে স্বাক্ষর ব্যবহার করেছে, সেটি মূল স্বাক্ষরের সঙ্গে মিল নেই। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রতারণার শিকার মেহেদী হাসান বাবু বলেন, প্রথমে আমরা তার কথায় বিশ্বাস করিনি। পরে চাকরির বিজ্ঞপ্তি দেখালে বিশ্বাস করি। তার দুই সহযোগী রুহুল আমিন ও তানজিম আহমেদ চৌধুরীর হাতে আমরা জনপ্রতি সাত হাজার করে ১৪ হাজার টাকা তুলে দেই।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x