মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
জনগণ চাইলে বিএনপিই ক্ষমতায় আসবে : ওবায়দুল কাদের নৌকার নির্বাচনী অফিস-এমপির গাড়িতে হামলা-আহত ৭ ‘চলে গেলেন সৃজিত’, জানালেন নিজেই ডিজিটাল এমএলএমে ৪১০ কোটি টাকা গায়েব ফের বইতে পারে শৈত্যপ্রবাহ ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, বাবা-ছেলে গ্রেফতার লাখপতিদের ব্যাংক থেকে টাকা কাটা শুরু গুগল ডুডলে ২০২১ সালের বিদায় জ্যাকলিন ও নোরাকে দামি উপহার, যা বললেন সুকেশ গাজীপুরে আলোচনায় ছিল জাহাঙ্গীর-কারাগার আর কাকলি ফার্নিচার ট্রেনে সাড়ে তিন কেজি গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার দাম্পত্য জীবনে সুখ আনতে নতুন বছরে যা করবেন কেমন যাবে ২০২২ সাল? জেনে নিন রাশি অনুযায়ী ২০২১ সালে দেশ-বিদেশে যেসব আলেমে দ্বীন ইন্তেকাল করেছেন নতুন বছর শুরু হোক দোয়ার মাধ্যমে
সন্তান অসুস্থ, হতাশায় আত্মহত্যা করলেন মা

সন্তান অসুস্থ, হতাশায় আত্মহত্যা করলেন মা

অনলাইন ডেস্কঃ ঠাকুরগাঁওয়ে নিজ ঘরে রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক গৃহবধূ। শনিবার (০১ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় সদর উপজেলার আকচা ইউনিয়নের আকচা মুন্সিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সোনালী আক্তার (৩২) হাজিমুল আলীর স্ত্রী। তিনি তিন সন্তানের মা।

নিহতের স্বামী হাজিমুল জানান, সকাল থেকে সংসারের কাজ করেন সোনালী। তিনি সকাল ৭টার মধ্যে ব্যবসার কাজে সবজির আড়তে চলে যান। আজও তাকে হাসিমুখেই বিদায় জানান তার স্ত্রী। পরে মুঠোফোনে জানতে পারেন তার স্ত্রী আত্মহত্যা করেছেন।

হাজিমুল জানান, পরপর তিন ছেলে হয়েছে আমাদের। আমার স্ত্রীর একটি কন্যা সন্তানের খুব শখ ছিল। চার মাস আগে জন্মগত হৃদরোগ ও ডায়াবেটিস আক্রান্ত হয়ে আমাদের তৃতীয় ছেলের জন্ম হয়। সেই থেকে আমার স্ত্রী মানসিকভাবে খুব ভেঙে পড়ে। প্রতিদিন রাতে কান্নাকাটি করতো, আর আফসোস করতো। আমি অনেক বোঝাতাম। ভরসা রাখতে বলতাম।

প্রতিবেশী তাহমিনা তামান্না বলেন, সোনালী ভাবি তৃতীয় সন্তানের জন্য হতাশায় ভুগছিলেন। অনেক টাকা পয়সাও দৈনিক খরচ করতেন সন্তানের চিকিৎসার জন্য। তাকে প্রায় বলতে শোনা যেত এ জীবন রাখবো না। মাঝে মাঝে সন্তানদের মেরে আত্মহত্যা করতে চাইতেন। আমরা অনেক বোঝাতাম। সান্ত্বনা দিতাম। ঘটনাটি বেদনাদায়ক ও অনাকাঙ্ক্ষিত।

স্থানীয় জাহাঙ্গীর আলম বলেন, নিহতের স্বামী কাজে চলে যাওয়ার পর অনেক্ষণ দরজা বন্ধ থাকায় এবং অনেক ডাকাডাকিতেও কোনো সাড়া না পেলে পরিবারের লোকজন আমাদের খবর দেয়। আমরা দরজা ঠেলে দেখি ঘরের আঁড়ার সঙ্গে মরদেহটি ঝুলছে। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের খবর দিই।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কুলুরাম রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এলাকার সম্ভ্রান্ত ও সম্মানী ব্যক্তির পরিবার এটি। হতাশাগ্রস্ত হয়ে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে বলে তিনি জানান।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছে। এ ঘটনায় কোনো লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এজেড এন বিডি ২৪/ তমা

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x