বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৩৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
বিকেএসপিতে ৩৮ জনের চাকরির সুযোগ একহাতে ১৩ টেনিস বল রেখে গিনেস বুকে বাংলাদেশি মনিরুল নিজেকে সামলাতে পারবেন পূজা? জ্বলন্ত সিগারেট হাতে এ কোন ববি! নতুন জুটি রোশান-প্রিয়মনি রাজধানীতে ইয়াবা-হেরোইনসহ গ্রেফতার ৫৪ এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু এইচএসসি পরীক্ষায় বসছে ১৪ লাখ শিক্ষার্থী ওমিক্রন পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা: শিক্ষামন্ত্রী ২০২২ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা বছরের মাঝামাঝি সময়ে: শিক্ষামন্ত্রী ‘খালেদা জিয়ার হিমোগ্লোবিন কমেছে’ সরকার যদি অবৈধই হয় তা হলে দাবি করছেন কেন: ফখরুলকে কাদের আইপিএলকে টেক্কা দিতে আসা টি২০ লিগে দল কিনল ম্যানইউ রাজশাহীতে সড়কে বাবা-ছেলেসহ প্রাণ হারালেন ৩ জন কারাগারে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে জালিস মাহমুদ
র‍্যাব-পুলিশকে এগিয়ে থাকতে হবে: আইজিপি

র‍্যাব-পুলিশকে এগিয়ে থাকতে হবে: আইজিপি

অনলাইন ডেস্কঃ পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, প্রতিদিন টেকনোলজি আপডেট হয়। এজন্য র‍্যাব-পুলিশকে টেকনোলজি আপডেটের সঙ্গে সঙ্গে এগিয়ে থাকতে হবে।

শনিবার রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে আয়োজিত কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২১ এর উদ্বোধন ও আলোচনা অনুষ্ঠানে আইজিপি এ কথা বলেন।

সাইবার ওয়ার্ল্ডের স্যোশাল মিডিয়া পুলিশের সামনে আগামী চ্যালেঞ্জ উল্লেখ করে পুলিশ প্রধান বলেন, পুরাতন অপরাধ কমছে কিন্তু প্রতিনিয়ত সাইবার অপরাধ বাড়ছে। সাইবার ওয়ার্ল্ড দেশের জন্য, মানুষের জন্য হুমকি তৈরি করছে। সাইবার অপরাধ মোকাবিলায় আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। সাইবার অপরাধ মোকাবিলায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করবো। সাইবার ওয়ার্ল্ডের যে ঝুঁকি রয়েছে, সেই ঝুঁকি থেকে আমাদের দেশকে রক্ষা করতে হবে।

আইজিপি বলেন, শূন্য অপরাধ কোনো সমাজে পাওয়া খুব কঠিন। ইউরোপের অনেক জেলখানা এখন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কারণ, সেখানে কোনো অপরাধী পাওয়া যাচ্ছে না। তবে একটি কমন জেলাখানা রাখা হয়েছে, যাতে করে কেউ পাওয়া গেলে তাদের রাখা যাবে।

ড. বেনজীর আহমেদ আরো বলেন, যখন ভীতিমুক্ত পরিবেশে রাত তিনটার সময় অথবা ভোর পাঁচটার সময় একাকী একজন নারী কিংবা একটি শিশু মহাসড়ক, রাজপথসহ সব পথে হেঁটে যাবেন তখন আমরা একটি ভীতিমুক্ত ও অপরাধমুক্ত সমাজের কাছাকাছি এসে পৌঁছে যাবো। তবে পুলিশের পক্ষে এটি এককভাবে সম্ভব নয়। এ কাজ রাষ্ট্রকে করতে হবে পার্টনারশিপের মাধ্যমে। পার্টনারশিপ করতে হবে সমাজ ও নাগরিকদের সঙ্গে। একেই বলা হয় পার্টনারশিপ ইন পুলিশিং।

তিনি আরো বলেন, একাধিকবার বাংলাদেশ জঙ্গিদের কবলে পড়েছে। আমরা প্রতিবারই জঙ্গিদের নেটওয়ার্ক সমূলে উৎপাটন করতে পেরেছি। এর একমাত্র কারণ হচ্ছে, জনগণের সঙ্গে আমাদের মেলবন্ধন ছিল। প্রতিবার হামলার সময় দেশের মানুষ যেভাবে পুলিশকে সহযোগিতা করেছে, সেই সহযোগিতা না পেলে আমরা সফল হতে পারতাম না। আমাদের দেশের মানুষ শান্তিপ্রিয়। তারা শান্তি ভালোবাসে। জনগণ কখনোই রক্তপাত পছন্দ করে না, এ কারণে জঙ্গিবাদ এ দেশে শেকড়-বাকড় গেড়ে বসতে পারে না।

ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, আমাদের পেশাদার, সেবামূলক, জনবান্ধব, নারীবান্ধব ও শিশুবান্ধব সর্বোপরি মানবিক পুলিশিংয়ের মাধ্যমে দেশকে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। পুলিশিং কার্যক্রমে অধিকতর জনসম্পৃক্ততা ও অংশীদারত্বের মাধ্যমে তা অর্জন করা সম্ভব। আজকের এই কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সেই ধারণাকে, সেই যোজনাকে আরো সমৃদ্ধি করতে চাই।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x