মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
পানির সঙ্গে এসিড মিশিয়ে স্বামীকে হত্যা নোয়াখালীতে জাল ভোট দিতে গিয়ে দুই সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ধরা ‘আমাকে আর ইভা রহমান ডাকবেন না’ আবার বিয়ে করলেন ইভা রহমান, মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে বিচ্ছেদ ব্যবসায়ী সোহেল আরমানের ঘরে ইভা রহমান বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদি আরব এক হাত নিয়েই জীবনযুদ্ধে লড়ছেন সাইফুল সাংবাদিকদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠি অপ্রত্যাশিত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পরিবারের সঙ্গে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিল যুবক নরসিংদী সদর ইউএনও’র ফোন নম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি নানার বাড়ি বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো শিশু স্বচ্ছ থাকলে সাংবাদিক নেতাদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই: তথ্যমন্ত্রী শীতলা বাড়িতে এবার অজান্তা প্রতিমায় দুর্গাপূজা দুর্গাপূজায় ৩ কোটি টাকা অনুদান প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার কারণেই মহামারিতে রূপ নিতে পারেনি করোনা: নৌপ্রতিমন্ত্রী
বেরোবিতে নিয়োগ বঞ্চিত প্রার্থীকে চাকরি দিতে উচ্চ আদালতের রুল জারি

বেরোবিতে নিয়োগ বঞ্চিত প্রার্থীকে চাকরি দিতে উচ্চ আদালতের রুল জারি

অনলাইন ডেস্কঃ অভ্যন্তরীণ প্রার্থী হিসাবে সব যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা থাকা সত্ত্বেও নিয়োগ বঞ্চিত ব্যক্তিকে কেন পুনঃনিয়োগ দেয়া হবে না এবং কেন তার ওই পদে চাকরিরত ব্যক্তির নিয়োগ অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন উচ্চ আদালত।

গত সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) উচ্চ আদালতের এক বেঞ্চ নিয়োগ বঞ্চিত প্রার্থী মো. হায়দার আলীর করা রিট পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে উক্ত বিষয়ে রুল ও নির্দেশনা জারি করেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি) কর্তৃপক্ষের প্রতি। বাদী পক্ষের আইনজীবী হাসনাত কাইয়ুম সাংবাদিকদেরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রিট পিটিশনের বিবরণে জানা যায় মো. হায়দার আলী অভ্যন্তরীণ প্রার্থী হিসাবে সব যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা থাকা সত্ত্বেও তার পরিবর্তে বাহিরের প্রার্থী মো. হুমায়ূন কবীরকে সেকশন অফিসার/অফিস ম্যানেজার পদে ২০১৯ সালের ১৬ মে নিয়োগ প্রদান করে তৎকালীন উপাচার্যের নেতৃত্বাধীন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

মো. হায়দার আলী প্রশাসনিক কর্মকর্তা/অফিস ম্যানেজার হিসেবে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাস্যুরেন্স সেলে কর্মরত ছিল কিন্তু ২০১৮ সালের ডিসেম্বর প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরিহার্য অঙ্গ হিসেবে এই সেলের জনবলকে বাজেটে অন্তর্ভুক্তির জন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ৩টি কার্যালয় স্মারক পত্র প্রেরণ করে। সে মোতাবেক বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয় কিন্তু সকল যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও হায়দার আলীকে নিয়োগ দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ বঞ্চিত হায়দার আলীর।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মুস্তাফা কামাল বলেন, ‘রুল জারি সংক্রান্ত কোন কাগজপত্র আমরা এখন পর্যন্ত পাই নি। তবে হাইকোর্ট থেকে কোনো নির্দেশনা এলে অবশ্যই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x