সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্বের বাধ্যবাধকতা তুলে নিল সৌদি নুসরাতের মামলা: অসংলগ্ন অনুমান আর কল্পনা মানুষের জীবনের থেকেও কি ধর্ম বড়, প্রশ্ন শ্রীলেখার স্ত্রীকে রেখে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করলেন শিক্ষক হাতির পিঠে চড়ে মনোনয়ন জমা সনাতন ধর্মাবলম্বীর সৎকারে এগিয়ে এলো মুসলিমরা আবারও বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম বগুড়ার অপু বিশ্বাস যেভাবে সিনেমার নায়িকা হলেন শহীদ শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন আজ স্কটল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বকাপ শুরু বাংলাদেশের বাংলাদেশের সামনে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল স্কটল্যান্ড মালিঙ্গাকে পেছনে ফেলে বিশ্ব রেকর্ড সাকিবের কাপাসিয়ায় ১১ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ৫০ জন লক্ষ্মীপুরে ৪ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ২৮ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল বাংলাদেশের দাপুটে বোলিংয়ে কোণঠাসা স্কটল্যান্ড
ফেনীতে গৃহবধূকে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় আটক ২

ফেনীতে গৃহবধূকে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় আটক ২

অনলাইন ডেস্কঃ ফেনীর ফুলগাজীতে খালেদা ইসলাম নামে এক গৃহবধূকে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় অভিযুক্ত মো. তারেক ও আবদুল্লাহ আল ফয়সাল মিনার নামে দুই যুবককে আটক করা হয়েছে।

রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে র‌্যাব ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এর আগে রোববার দুপুরে শ্বশুরবাড়ির নির্যাতনে বাকশক্তি হারানো গৃহবধূকে ঘরের জানালা দিয়ে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায় দুই যুবক। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর মা শাহেন আরা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

নির্যাতিত গৃহবধূর মা শাহেনা আরা অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার মেয়ে অ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের চিনতে পেরেছে। তারা আমার মেয়ের শ্বশুরবাড়ির পক্ষের লোকজন।’

ফুলগাজী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবু তাহের জানান, গৃহবধূ খালেদা ইসলামের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী তার ওপর অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। আটক মো. তারেক র‌্যাব হেফাজতে ও আবদুল্লা মিনার ফুলগাজী থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

খালেদা ইসলামের পারিবারিক সূত্র জানায়, প্রায় পাঁচ বছর আগে ফুলগাজী উপজেলার দরবারপুরের ইসমাইল হোসেনের মেয়ে খালেদা ইসলামের সঙ্গে পরশুরাম উপজেলার সাতকুচিয়া গ্রামের প্রবাসী লিখন আহমেদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে লিখনের মা, ভাই ও বোনেরা খালেদাকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করতে থাকেন। গত ৭ আগস্ট খালেদা ইসলামকে চিকিৎসার নামে নির্যাতনের পর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বাবার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় ফুলগাজী থানায় একটি মামলা করা হলে খালেদা ইসলামের ননদ হাসিনা আক্তার ও ননদের স্বামী আবুল কাশেমকে গ্রেফতার করা হয়। এর জেরেই খালেদা ইসলামকে অ্যাসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে অভিযোগ স্বজনদের।

এজেড এন বিডি ২৪/হাসান

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x