বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৩২ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
নিজেকে সামলাতে পারবেন পূজা? জ্বলন্ত সিগারেট হাতে এ কোন ববি! নতুন জুটি রোশান-প্রিয়মনি রাজধানীতে ইয়াবা-হেরোইনসহ গ্রেফতার ৫৪ এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু এইচএসসি পরীক্ষায় বসছে ১৪ লাখ শিক্ষার্থী ওমিক্রন পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা: শিক্ষামন্ত্রী ২০২২ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা বছরের মাঝামাঝি সময়ে: শিক্ষামন্ত্রী ‘খালেদা জিয়ার হিমোগ্লোবিন কমেছে’ সরকার যদি অবৈধই হয় তা হলে দাবি করছেন কেন: ফখরুলকে কাদের আইপিএলকে টেক্কা দিতে আসা টি২০ লিগে দল কিনল ম্যানইউ রাজশাহীতে সড়কে বাবা-ছেলেসহ প্রাণ হারালেন ৩ জন কারাগারে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে জালিস মাহমুদ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের মানসিকতার উন্নতি করতে চান সাকিব ভিক্ষুকের মত নির্লজ্জ ভাবে পায়ে ধরে শুধুই শেয়ার টা ভিক্ষা চাচ্ছি
পরিচ্ছন্ন মাঠে দুরন্ত শৈশব

পরিচ্ছন্ন মাঠে দুরন্ত শৈশব

ছবি সংগৃহিত

জিলফুল মুরাদ : শিশুরা বেড়ে উঠবে। এই বেড়ে উঠা মানে তো কেবল শারীরিকভাবেই নয়, এর সাথে জড়িত আছে মানসিক বিকাশও। কিন্তু জন্মের পর থেকে ফ্ল্যাটের মধ্যে বেড়ে উঠতে গিয়ে শিশুদের মানসিক বিকাশের পর্যাপ্ত অনুষঙ্গ প্রায় অনুপস্থিত। ভবিষ্যৎ সুনাগরিকদের যথাযথভাবে গড়ে তুলতে তাকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তোলা রাষ্ট্র, অভিভাবক তথা সমাজের সকলেরই দায়িত্ব রয়েছে। এজন্য দরকার তার মানসিক বিকাশ। আর এই মানসিক বিকাশের জন্য পড়াশোনার পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি ভূমিকা পালন করে খেলাধুলা।

কিন্তু শহরগুলোতে খেলাধুলার ব্যবস্থা কোথায়? উন্মুক্ত পরিবেশে খেলাধুলা শিশুর বিকাশে সহায়ক, তা অনুপস্থিত। নেই মাঠ, নেই পর্যাপ্ত অনুষঙ্গ। তাই শিশুরা ঘরের মেঝে, বাড়ির ছাদকে বানিয়ে নিয়েছে খেলা মাঠ। কেউ বুদ হয়ে থাকে কম্পিউটার মনিটর বা মোবাইলের স্ক্রিনে। কম্পিউটার-মোবাইল গেমস আর টেলিভিশনের কার্টুন কেড়ে নিচ্ছে খোলা পরিবেশে বেড়ে ওঠার মানসিক বিকাশের সুযোগ। যদিও জাতিসংঘের শিশু সনদে বলা হয়েছে, শিশুদের শারীরিক, মানসিক ও সাংস্কৃতিক বিকাশের উপযোগী পরিবেশ রক্ষা ও সৃষ্টি করা রাষ্ট্রের কর্তব্য। জাতীয় শিশুনীতি ও শিক্ষানীতিতেও শিশুর বিকাশ নিশ্চিত করার জন্য অনেক কথা বলা হয়েছে। অথচ বাস্তবে হচ্ছে উল্টোটা। সুযোগ সৃষ্টি তো হচ্ছেই না, যেটুকু সুযোগ আছে, তা-ও রক্ষা করা যাচ্ছে না। না আছে খেলাধুলা বা শরীরচর্চার সুযোগ, না আছে মুক্ত বাতাসে ঘুরে বেড়ানোর আনন্দ। বিদ্যা অর্জন বা বিকশিত হওয়ার জন্য সুস্থ দেহ ও সুন্দর মন দুটিই জরুরী। এ জন্য দরকার উন্মুক্ত পরিবেশে খেলাধুলার সুযোগ।

সারা শহরজুড়ে শুধু বিল্ডিং। এখানে খেলার মাঠ কোথায়। মুক্তিযুদ্ধের আগে যেসব খেলার মাঠ ছিল; সেগুলোও এখন আর নেই। আমাদের সন্তানদের জন্য খেলাধুলার উপযোগী তো দূরের কথা একটি হাঁটা-চলার জন্যও তেমন ভালো জায়গা মেলে না। আর যে ক’টি খেলার মাঠ আছে সেগুলোর অনেকটিরই যথেষ্ট পরিবেশ নেই। পরিচ্ছন্নতার অভাবে সেগুলো পরিবেশ হারিয়েছে। তবে, আশার দিক হচ্ছে সরকারি-বেসরকারি কিছু প্রতিষ্ঠান খেলার মাঠের পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হয়েছে। সম্প্রতি এমন একটি উদ্যোগ নিয়েছে ‘ডেটল হারপিক পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ’ ক্যাম্পেইন। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ রফিককে সঙ্গে নিয়ে পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ ক্যাম্পেইন রাজধানীর বিভিন্ন মাঠের পরিবেশ ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে। শহরের মাঠগুলোকে পরিচ্ছন্ন করে খেলাধুলার পরিবেশ ফিরলে হয়তো শৈশবের দুরন্তপনা আবারও দৃশ্যমান হবে।

লেখক : ফ্রিল্যান্স লেখক

এজেড এন বিডি ২৪/ রাকিব

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x