বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩২ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- aznewsroom24@gmail.com ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
ডেঙ্গু রোগী ভর্তি ২২ হাজার ছাড়াল, এ পর্যন্ত মৃত্যু ৮৪ ১১ মামলায় খালেদা জিয়ার হাজিরা ২২ নভেম্বর রান না দিয়ে তাসকিনের উইকেট শিকার, প্রথম বলেই সাকিবের সাফল্য শেষ ওভারে সাইফউদ্দিনের তাণ্ডব দ্বিতীয় ওভারেই সাইফউদ্দিনের সাফল্য অষ্টম শ্রেণিতে পড়েই এসপির চেয়ারে নুসরাত মণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখা কে এই ইকবাল? প্রকাশ পেল যুবলীগের চিঠি সংকলন গ্রন্থ ‘প্রিয় বঙ্গবন্ধু’ ঝিনাইদহে ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার পাপুয়া নিউগিনিকে ১৮২ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ অর্থপাচার মামলা: কুয়েতে দণ্ডপ্রাপ্ত পাপুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ২২ ডিসেম্বর ফিফটির পর সাজঘরে মাহমুদউল্লাহ অর্ধশতক হাঁকিয়ে ফিরলেন মাহমুদুল্লাহ পাপুয়া নিউগিনিকে ১৮২ রানের টার্গেট দিল টাইগাররা ৩৯ বছর আগে পাপুয়া নিউগিনির কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ
ইভ্যালির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে পেপারফ্লাই

ইভ্যালির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে পেপারফ্লাই

অনলাইন ডেস্কঃ বকেয়া পাওনা আদায়ে বিতর্কিত ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মে ইভ্যালির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে প্রযুক্তিখাতের সবচেয়ে বড় বিলিকরণ প্রতিষ্ঠান পেপারফ্লাই।

দেশজুড়ে পণ্য ডেলিভেরি দেওয়ার মাসুল হিসেবে কয়েক কোটি টাকা বকেয়া হলেও গত জানুয়ারি থেকে ইভ্যালি কোনো বিল পরিশোধ করেনি বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন পেপারফ্লাইয়ের রেভেনিউ এশিউরেন্স ম্যানেজার ফারীন মনসুর। বকেয়ার পরিমাণ সাত কোটি টাকা বলে জানান তিনি।

দেনা বাড়তে থাকায় ইভ্যালির অর্ডারের বিপরীতে দেশজুড়ে গ্রাহকের ঠিকানায় কিছুদিন বিলিকরণ সেবা চালিয়ে যায় পেপারফ্লাই। কিন্তু এই সময়ে বকেয়া নিষ্পত্তিতে বেশ ঝুঁকিতে পরে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পেপারফ্লাইয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, আমরা কয়েকবার বকেয়া আদায়ে আলোচনার উদ্যোগ নিলেও ইভ্যালির কাছ থেকে কোনো সাড়া মেলেনি। আমরা আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

সোমবার পেপারফ্লাইয়ের পক্ষ থেকে ইভ্যালির ঠিকানায় উকিল নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেব অনুযায়ী শুধুমাত্র ব্যবসায়ীদের কাছে ইভ্যালির বকেয়া ২০৫ কোটি টাকার উপরে।

সাধারণ মানুষকে বাজারের চেয়ে কম দামে লোভনীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে টাকা নেওয়ার উদ্যোগ হিসেবে সাইক্লোন (পরবর্তী সময়ে টিটেন নামকরণ) অফার দিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ পাচারের অভিযোগ আছে ইভ্যালির বিরুদ্ধে। টাকা নিয়ে পণ্য না দেওয়ার চর্চা ই-কমার্স খাতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ তৈরি করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের করা অনুসন্ধানে দেখা গেছে, গ্রাহক এবং ব্যবসায় অংশীদারদের কাছে ৪০৩ কোটি টাকার দেনায় থাকলেও ইভ্যালির অস্থাবর সম্পদের মূল্য মাত্র ৬৫ কোটি টাকা। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির সাথে লেনদেন বন্ধ করে দিয়েছে।

এজেড এন বিডি ২৪/ রামিম

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© 2021, All rights reserved aznewsbd24
x