বৃহস্পতিবার, ২৪ Jun ২০২১, ১১:৫৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
সুপ্রিয় পাঠক, শুভেচ্ছা নিবেন। সারাবিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ পড়তে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক দিয়ে ফলো অপশনে সি-ফাষ্ট করে সঙ্গেই থাকুন। আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রচারে স্বল্পমূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন- 01855883075 ধন্যবাদ।
সর্বশেষ সংবাদ :
তিনি প্রখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার ত্রিপুরার নীল রানাউত ধর্ষণের দায়ে ৭ পুরুষকে হত্যা করেন যে নারী! কাঞ্চন বলছে মাসে সাড়ে ৩ লাখ টাকা চেয়েছি, প্রমাণ কী : পিঙ্কি ওসি প্রদীপের সহযোগী কনস্টেবল সাগরের আত্মসমর্পণ এবার ইন্দিরা গান্ধী চরিত্রে কঙ্গনা, পরিচালনাও করবেন তিনি ব্রাজিলের সেই গোল নিয়ে বিতর্ক থামছেই না, দেখুন ভিডিও জর্ডান-ইরানের গ্রুপে সাবিনা-মৌসুমিরা জেলের জালে ধরা পড়লো শুশুক, কিনে জরিমানা গুনলেন দুজন তেত্রিশ বসন্ত পেরিয়ে চৌত্রিশে মেসি নির্মাণ হচ্ছে আটটি আধুনিক সাইলো জীবিকার চাকা সচল রাখতে দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে সরকার শনিবার থেকে পিরোজপুরের ৪ পৌর এলাকায় লকডাউন সাবেক ডিআইজি প্রিজন্স পার্থের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দীর্ঘদিন করোনায় ভুগে হতাশা-যন্ত্রণায় আত্মহত্যা জেনারেল র‍্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নতুন সেনাপ্রধানকে
অবশেষে বদলি শাজাহানপুরের সেই ইউএনও

অবশেষে বদলি শাজাহানপুরের সেই ইউএনও

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ অবশেষে বদলি হয়েছেন বগুড়ার শাজাহানপুরের ইউএনও মাহমুদা পারভীন। তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। তিনি ২০১৯ সালের ২৭ অক্টোবর শাজাহানপুরে ইউএনও হিসেবে যোগদান করেছিলেন।

ইউএনওর কার্যালয়ের তথ্যমতে, ইউএনও মাহমুদা পারভীরকে রাজশাহীর পরিবেশ অধিদফতরে উপ-পরিচালক হিসেবে বদলি করা হয়েছে। ইউএনওর বিরুদ্ধে প্রকল্পের টাকা আটকে রাখা, বাসায় বসে অফিস করাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে।

অবরুদ্ধ ইউএনও

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে সরকারি অনুদানের আবেদন করেও না পেয়ে ইউএনও মাহমুদা পারভীনের গাড়ি অবরুদ্ধ করা হয়।

গত বছরের ২১ অক্টোবর বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদের সামনে শত শত ভুক্তভোগীরা মানববন্ধন করেন। ওই সময় ইউএনও মাহমুদা পারভীন গাড়িতে করে বের হচ্ছিলেন। ভুক্তভোগীরা ক্ষুব্ধ হয়ে সেই গাড়ি আটকে দিয়ে ইউএনওকে অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে পুলিশে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

অভিযোগ উঠেছিল, গত বছরের দুর্গাপূজার প্রায় এক মাস আগে ইউএনওর কাছে আবেদন করেছিল উপজেলার রাধা গোবিন্দ মন্দিরের পূজা উদ্যোক্তা কমিটি। কিন্তু তাদের আবেদন আমলে নেননি ইউএনও মাহমুদা পারভীন। এতে গ্রামবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে ইউএনওর বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও অবরুদ্ধ করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দেয়ার হুমকি

বগুড়ায় যুবলীগ নেতাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দেয়ার হুমকির অভিযোগ উঠেছিল ইউএনও মাহমুদা পারভীনের বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে গত ২২ ডিসেম্বর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে একটি অভিযোগ দেয়া হয়। অভিযোগটি করেন শাজাহানপুর উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ও বগুড়া-৭ আসনের এমপির প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম।

অভিযোগে বলা হয়েছে, গত ১৫ ডিসেম্বর বিকেলে ৪টার দিকে ইউএনও মাহমুদা পারভীনকে ফোন করেন যুবলীগ নেতা নজরুল ইসলাম। তিনি ইউএনওর কাছে বিজয় দিবসের কর্মসূচির বিষয়ে জানতে চান। তখন ইউএনও তাকে বলেন, ‘আপনি যুবলীগের নজরুল না? আপনি আমাকে কেন ফোন দিয়েছেন? আপনি আমাকে ফোন দেবেন না। আমি আপনাকে খুঁজতেছি! পেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দিয়ে দেব।’

বাসায় অফিস ও জনগণের ভোগান্তি

গত ডিসেম্বর মাসে ২০ থেকে ২২ দিন অফিসে না গিয়ে বাসায় ছিলেন ইউএনও মাহমুদা পারভীন। উপজেলা পরিষদ এলাকায় বাসা থেকেই অফিসের জরুরি কিছু ফাইলপত্র স্বাক্ষর করেছেন। ওই সময় সেখানে সেবা পাননি কোনো মানুষ। ইউএনওকে না পেয়ে অনেকেই ভোগান্তিতে পড়েছেন।

প্রকল্পের টাকা নেয়ার অভিযোগ

ইউএনও মাহমুদা পারভীনের বিরুদ্ধে প্রকল্পের টাকা আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছিল। এ অভিযোগে গত ২৯ অক্টোবর মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও স্থানীয়রা। উপজেলার মাঝিড়া বটতলা এলাকায় এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধন থেকে অভিযোগ তোলা হয়েছিল, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের এমপির টিআর বরাদ্দ ও সাধারণ বরাদ্দের ২৪টি প্রকল্পের অধীনে ১২ লাখ টাকা আটকে রেখেছিলেন ইউএনও মাহমুদা পারভীন। বারবার ধরনা ধরলেও তিনি টালবাহানা করেছেন। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে উপজেলার ২৪টি প্রতিষ্ঠান।

জগন্নাথপুর দাখিল মাদরাসার সুপার আব্দুর রহমান ওই সময় বলেছিলেন, তার প্রতিষ্ঠানের মাঠের গর্ত ভরাট প্রকল্পের অধীনে ৩ টন টিআর বরাদ্দ দেয়া হয়। কাজ শেষ হলেও বরাদ্দের ১ লাখ ৩০ হাজার ৫০০ টাকা পরিশোধ করা হয়নি।

এজেড এন বিডি ২৪/ রামিম

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved@2021 aznewsbd24.com
Design & Developed BY MahigonjIT